মেরুদন্ডের ব্যথার চিকিৎসা নিয়ে যত অব্যবস্হা বা অপচিকিৎসা !

মেরুদন্ডের ব্যথার চিকিৎসা নিয়ে যত অব্যবস্হা বা অপচিকিৎসা !

Wednesday, 23 August 2017, 07:26 pm, banglamed dot com -

                                                   

 

 

 

                                                        মেরুদন্ডের হাড় বা কশেরুকা(Vertebra) ছবির মত করে খাড়া ভাবে সাজানো বা Image result for spineবসানো থাকে।দুটি কশেরুকার(vertebra) মাঝে নমনীয়(elastic) বস্তু থাকে যাকে ডিস্ক(intervertebral disc)বলে।যার ফলে যুক্ত কশেরুকাগুলো(vertebral column) বিভিন্ন মাত্রায় নড়াচড়া(movement) করতে পারে। প্রত্যেক কশেরুকার পিছনেই রয়েছে একটি বড় ছিদ্র যাকে vertebral foramina বলে। দুটি কশেরুকার মাঝে থাকে ডিস্ক আর তার ঠিক পিছনে থাকে ছিদ্র বা foramina যার ভিতরে থাকে মেরুরজ্জু বা spinal cord। মেরুরজ্জু বা spinal cord মস্তিষ্ক(brain) থেকে প্রায় মেরুদন্ডের শেষাব্দী পর্যন্ত বিস্তৃত।মস্তিষ্ক(brain) ও শরীরের বিভিন্ন অঙ্গের মধ্যে স্নায়ুবিক সম্পর্ক স্হাপিত হয় এই মেরুরজ্জু বা spinal cord এর মাধমেই।

                     
ডিস্ক(inervertebral disc) একটি চেপটা(flat) থলের মতো।বাহিরের দিকটা কিছুটা শক্ত হলেও ভিতরের অংশটা ঘন তরল বস্তুর মতো।ফলে হঠাৎ কিংবা দীর্ঘমেয়াদী কোন চাপের কারনে যদি এই ডিস্কটি ছিদ্র হয় বা ফেটে যায় তাহলে ডিস্কের ভিতরের নরম পদার্থ বের আসে যা মেরুরজ্জু বা স্পাইনাল কর্ড থেকে বের হয়ে আসা স্নায়ুর উপর চাপ সৃষ্টি করে। এই চাপের কারনেই পিঠে,পায়ের বিভিন্ন অংশে ব্যথা অনুভূত হয়। চাপের মাত্রার যত বেশী ব্যথাও অনুভূত হয় তত বেশী।

এই রোগ নির্ণনয়ের জন্য সঠিক ও নির্ভরযোগ্য পরীক্ষা বা টেষ্ট হচ্ছে MRI। যার মাধ্যমে সঠিক ভাবে ডিস্ক বের হয়ে(disc prolapsed) আসার স্হান নির্ণয় করা সম্ভব।

চিকিৎসা ব্যথার মাত্রা ও ডিস্ক প্রোলাপ্স(disc prolapse) এর মাত্রা ও স্হান এবং তার সম্ভাব্য পরবর্তি জটিলতার উপর  নির্ভর করে।

অল্প ব্যথা বেদনানশক(analgesic), চলাফেরায় কিছু দেহভঙ্গি পরিবর্তনে মাধ্যমে চিকিৎসা করা হয়।

ইদানীং কোন কোন চিকিৎসক ডিস্ক প্রোলাপ্সের(disc prolapse) স্হানে স্টেরয়েড জাতীয় ইনজেক্শন পুশ করে থাকেন যা স্হায়ী কোন চিকিৎসা নয়। 

এই রোগের স্হায়ী চিকিৎসা হলো স্নায়ুর উপর চাপ সরিয়ে ফেলা যা শুধুমাত্র অপারেশনের মাধ্যমেই সম্ভব। 

এই অপারেশন সাধারণত নিউরোসার্জনই করে থাকেন। 

বিভিন্ন মানুষ অপারেশন নিয়ে বিরুপ মন্তব্য করলেও তা সঠিক নয়।বাংলাদেশে কিছু সার্জন একটি বা দুটি হাসপাতালে নিউরোনেভিগেশন মেশিনের সাহায্যে সুক্ষভাবে ও সঠিকভাবে এই অপারেশন করে থাকেন।

লেখাটি রোগীদের সাধারণ ধারনা দেবার উদ্দেশ্যে লেখা। 

সুনির্দিষ্ট চিকিৎসার পথ দেখাবেন আপনার চিকিৎসক।

সকল সরকারী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় ও মেডিকেল কলেজে এবং বেশ কিছু প্রাইভেট হাসপাতালে এই চিকিৎসা করা হয়। ন্যাশনাল ইনষ্টিটউট অব নিউরোসায়েন্স হসপিটাল(NINS) সকল স্নায়ুরোগের চিকিৎসার একটি উত্তম হাসপাতাল।

তবে বেদনার বিষয় হলো এই যে,একটি প্রতারক চক্র চিকিৎসক না হয়েও আজ এই রোগটির চিকিৎসার নামে অপচিকিৎসার ফাঁদ পেতেছে! বিষ্ময়কর হলেও সত্যি এই যে, তারা থেরাপী ও ব্যথার স্হানে ইনজেকশন(Intra Lesional Injection) দিয়ে রোগ নির্মূল করে দেয়ার গ্যারান্টী দিয়ে রোগীর কাছ থেকে প্রচুর অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে।এরা আইনতঃ এর চিকিৎসা দেয়ার যোগ্য না হয়েও এরা এটি দিব্যি চালিয়ে যাচ্ছে। প্রশাসন ব্যবস্হা নেয়ার পরও আবার তা চালিয়ে যাচ্ছে।অপ্রয়োজনীয় দামী ঔষধ দিয়ে, তাদের নিজস্ব সেন্টারে ভর্তি রেখে, নিজস্ব সেন্টারে MRI করে ও ব্যথার স্হানে ইনজেকশন(Injection) প্রয়োগ করে।এটা নিজস্ব স্লট কিনে কিছু টেলিভিশনে টক'শো(Talk Show) তে এমন ভাবে কথা বলে এবং নিজেদের উপস্হাপন করে যাতে করে মনে হয় যেন এরা বিশ্বখ্যাত নিউরোসার্জন।

প্রতারনার হাত থেকে বাঁচতে সম্মানীত রোগীগন যেন সাবধান থাকেন আর চিকিৎসা প্রশাসন যেন বিষয়টি নিয়ে ভাবেন। 

Comments